গুগল ম্যাপসকে আরো স্মার্ট করতে নতুন তিন ফিচার

[ad_1]

টেকশহর কনটেন্ট কাউন্সিলর: গুগল ম্যাপসের সাহায্যে আমাদের ভ্রমন আরো সহজ হয়ে উঠে। ফলে দেখা যায় গুগল ম্যাপসের ব্যবহারকারীদেরকে অনেক বড় কোম্পানিও টার্গেট করে থাকেন। এমনকি গুগলের দীর্ঘদিনের প্রতিদ্ব›দ্বী অ্যাপলও এ দলে রয়েছে।

বাজার যখন সার্বিকভাবে এগিয়ে যাচ্ছে তখন গুগল ম্যাপও পিছিয়ে নেই। মাউন্টেন ভিউভিত্তিক গুগল আধুনিক বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে নিজেদের প্লাটফর্মকে আরো সক্ষম করে তুলতে নানারকম সুযোগ-সুবিধা যোগ করে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় গুগলের সর্বশেষ ঘোষণাগুলো চমকপ্রদ। নতুন করে গুগল ম্যাপে তিনটি নতুন ফিচার যোগ হয়েছে-

ইকো-ফ্রেন্ডলি রাউটিং:

Techshohor Youtube

গুগল ম্যাপসে ইকো ফ্রেন্ডলি রাউটিং ফিচারটি যোগ করার ঘোষণা অনেকদিন আগেই দেয়া হয়েছিল। এখন এটি গুগল ম্যাপসে পাওয়া যাবে। নতুন সুবিধার সঙ্গে এই দিকনির্দেশনামূলক অ্যাপটি শুধুমাত্র ব্যবহারকারীর দেয়া গন্তব্যে পৌঁছুতে দ্রুততম রুটের অনুসন্ধান করে না এটি সবচেয়ে জ্বালানী সাশ্রয়ী পথেরও সন্ধান দেয়। এছাড়ও গুগল ম্যাপ ব্যবহারকারীদের গ্যাস সাশ্রয়েও সহায়তা করে। ভ্রমনের গতি এবং রাস্তার নানা বাক গর্তের মতো বিষয়গুলো সামলে নিয়ে কার্বন নিঃসরন কমাতেও সাহায্য করে এই অ্যাপ।

নতুন একটি গন্তব্যের নির্দেশনা সেট করার পর এই ফিচারটির কল্যাণে গুগল ম্যাপ দ্রæততম এবং ইকো-ফ্রেন্ডলি রুটের সন্ধান করে। ব্যবহারকারীকে দুটি রাস্তার তুলনা দেখানো হয় যেখান থেকে ব্যবহারকারীর যেটি ভালো লাগে বাছাই করতে পারে। এছাড়া গুগল ম্যাপ কতটুকো জ্বালানী সাশ্রয় হবে এবং ইটিএ (ইলেক্ট্রনিক ট্রাভেল অথরাইজেশন) হিসাব সরবরাহ করতে পারে।

এছাড়াও গুগল ম্যাপ এখন পর্যন্ত দ্রæততম রুটগুলোর সন্ধান দিতে পারবে। সবমিলিয়ে বর্তমানে যখন গ্যাসের দাম চড়া তখন ইকো-ফ্রেন্ডলি দিকনির্দেশনামূলক ফিচারটি দারুন প্রশংসিত হয়েছে।

ইমারসিভ ভিউ

স্ট্রিট ভিউ ডাটা এবং এরিয়েল ইমেজসহ আধুনিক প্রজন্মের প্রযুক্তির সংমিশ্রনে ইমারসিভ ভিউ ফিচারটি তৈরি করা হয়েছে। এই প্রযুক্তিগুলো বিশ্বের একটি ডিজিটাল মডেল তৈরিতে সহায়তা করে। ইমারসিভ মুডের কল্যাণে গুগল ম্যাপস জনপ্রিয় স্থানগুলোর বিস্তারিত বর্ণনাসহ একটি থ্রিডি সংস্করন দেখাবে ব্যবহারকারীকে। থ্রিডি রূপে এসব স্থান বাস্তবের মতোই দেখাবে। সর্বপ্রথমে ইমারসিভ মুড ব্যবহারকারীকে জনপ্রিয় স্থানগুলোকে অনুসন্ধান করার সুযোগ করে দিবে, এরপর কিছু নির্ধারিত সেটিংসের সুবাদে স্থানগুলোর দিন এবং রাতের অবস্থা বোঝা যাবে।

চলতি সপ্তাহের শুরুর দিকে এই সুপার এডভান্স ফিচারটি উন্মোচনের সময় গুগল বার্সেলোনা, লন্ডন, নিউ ইয়র্ক এবং সান ফ্রান্সিসকোসহ প্রায় ১০০টি গন্তব্যের ফটোরিয়ালিস্টিক বায়বীয় দৃশ্য প্রকাশ করছে।

সাইকেলিস্টদের জন্য দিকনির্দেশনা

সবাই জানে যে গুগল ম্যাপসে সাইক্লিং নেভিগেশনও যোগ হচ্ছে। ফলে গুগল ম্যাপ ব্যবহারকারী যদি গাড়ি চালানোর পরিবর্তে বাইক চালাতে ইচ্ছুক হয় তাহলে এই অ্যাপটি গন্তব্যে পৌঁছানোর জন্য ধাপে ধাপে নির্দেশনা দিবে। কারন বাইক চালানোর সময় মোবাইল ব্যবহার করা অবশ্যই নিরাপদ নয়। সাইক্লিংয়ের ক্ষেত্রে দিকনির্দেশনার জন্য গুগল ম্যাপস একটি নতুন ইউআই পাচ্ছে যেখানে রিয়েল টাইমে হালনাগাদ করা ইটিএ, রাস্তার উচ্চতা এবং ভ্রমনের অগ্রগতির মতো অতিরিক্ত তথ্য থাকবে।

ইটিএ এবং যারা ঘুরে ঘুরে দিকনির্দেশনার জন্য নিয়মিত গুগল ম্যাপ ব্যবহার করছেন না তাদের জন্য বিস্তারিত তথ্যসহ নোটিফিকেশন সেন্টারে নোটিফিকেশনও দেখাবে। অবশ্য এই ফিচারটি এখনো পুরোপুরি প্রস্তুত হয় নি। আসছে মাসগুলোয় আইফোন এবং অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসগুলোয় ফিচারটি চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে গুগল।

আরএপি



[ad_2]

Source link

Leave a Comment