হত্যা মামলার আসামিকে করা হলো যবিপ্রবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক

[ad_1]

এ ছাড়া কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকের পদ পাওয়া এস এম ইকরামুল কবির ক্যাম্পাসে বিশৃঙ্খলা ও মাদক বিক্রেতার তালিকায় নাম রয়েছে। ক্যাম্পাসে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন তাঁকে সাময়িক বহিষ্কারও করে।

অভিযোগের বিষয়ে জানার জন্য সাধারণ সম্পাদক তানভীর ফয়সালের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন ধরেননি। তবে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমার নামে যে হত্যা ও ডাকাতি মামলা রয়েছে। তাতে বর্তমানে জামিনে আছি। তা ছাড়া এখনো আদালতে দোষী প্রমাণিত হইনি। রাজনৈতিকভাবেই এসব মামলায় আমার নাম জড়ানো হয়েছে।’

বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের নেতাদের সূত্রে জানা গেছে, ২০১৯ সালের ২ নভেম্বর যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (যবিপ্রবি) ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত করা হয়। এর আগে ২০১৪ সালের ১৬ মে ছাত্রলীগের তৎকালীন সভাপতি বদিউজ্জামান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলমের স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে সুব্রত বিশ্বাসকে সভাপতি ও এসএম শামীম হাসানকে সাধারণ সম্পাদক করে এক বছরমেয়াদি যবিপ্রবি ছাত্রলীগের ৫৪ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করা হয়। এর পর আর কোনো কমিটি হয়নি। আড়াই বছর পরে এবার আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে।

পদবঞ্চিত ছাত্রলীগ নেতারা বলছেন, বিতর্কিত ছাত্রদের পদ দেওয়া হয়েছে কেন্দ্র থেকে। এ ব্যাপারে তাঁরা কিছুই জানতেন না। কমিটি নিয়ে তুমুল সমালোচনা হচ্ছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। একই সঙ্গে সংগঠনে অন্তঃকোন্দলের সৃষ্টি হয়েছে।

[ad_2]

Source link

Leave a Comment