কূটনীতিকের বাসা থেকে মাদক উদ্ধারের অভিযোগ বিব্রতকর: শাহরিয়ার আলম

[ad_1]

বাংলাদেশের জন্য বিব্রতকর কি, এমন এক প্রশ্নের জবাবে শাহরিয়ার আলম বলেন, ‘ওই ঘটনা বলি, খবর বলি, আমাদের একজন কর্মকর্তা এর মধ্যে যুক্ত, এটা আমাদের জন্য বিব্রতকর। তিনি নিজে করেছেন, না তাঁর বন্ধু করেছেন, সেটা তদন্তের পরে আসবে। তবে পুরো বিষয়টি দুর্ভাগ্যজনক।’

জানা গেছে, ইন্দোনেশিয়ার মাদক নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের একটি দল ৫ জুলাই হঠাৎ জাকার্তায় বাংলাদেশ দূতাবাসের উপরাষ্ট্রদূত কাজী আনারকলির বাসায় অভিযান চালায়। ওই অ্যাপার্টমেন্ট টাওয়ারে নিষিদ্ধ মাদক মারিজুয়ানা রক্ষিত আছে, এমন অভিযোগে অভিযান চলে। ভিয়েনা কনভেনশন অনুযায়ী, কূটনীতিক আনারকলি দায়মুক্তির আওতাধীন ছিলেন। কিন্তু ইন্দোনেশিয়ার মাদক নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ সেটি উপেক্ষা করেই বাসায় অভিযান চালায়। অভিযানের পর তাঁকে ইন্দোনেশিয়ার মাদক নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের দপ্তরে নেওয়া হয়। অবশ্য কয়েক ঘণ্টা পর দূতাবাসের জিম্মায় ছাড়া পান তিনি। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ঘটনাটি জানার পর তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেয়। তাঁর দেশে ফেরার আদেশ জারি করে।

[ad_2]

Source link

Leave a Comment