গমের বদলে চালের আটা খান, ডলারের ওপর চাপ কমান

[ad_1]

জিনিসপত্রের দাম সামান্য একটু বাড়াতেই লোকেরা কেন উতলা হচ্ছে, সে বিষয়েও প্রতিমন্ত্রী মহোদয় প্রশ্ন তুলেছেন। অন্যান্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশে দাম সামান্য বেড়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেছেন, ‘সবাই বলে জিনিসের দাম বেড়েছে। সবাই বলে এটা হয়েছে, সেটা হয়েছে। জিনিসের দাম কী (কতটুকু) বেড়েছে, বাংলাদেশের মানুষ বুঝতে পারছেন না। এখানে সামান্য বেড়েছে, তাতেই মানুষের মনে অশান্তির সৃষ্টি হয়েছে।’ জিনিসপত্রের দাম বাড়ার কারণ ব্যাখ্যায় তিনি বলেছেন, ‘এই যে ভোজ্যতেল, সেটি আসে কোত্থেকে? সব আসে ইউক্রেন-রাশিয়া থেকে। আজকে ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ হওয়ার কারণে সারা বিশ্বে ধস নেমেছে। এমনও দেশ আছে, এক কেজি চালের দাম ৫০০ টাকা। অথচ বাংলাদেশের মানুষ এখনো স্বল্পমূল্যে সব খাচ্ছেন।’

এখানে আমরা দুটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাচ্ছি। একটি হলো ‘ভোজ্যতেল সব আসে ইউক্রেন ও রাশিয়া থেকে’। অথচ সংবাদমাধ্যমগুলো থেকে এত দিন আমরা জেনে এসেছি বাংলাদেশে সয়াবিন তেল মূলত আমদানি করা হয় ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা থেকে। ইউক্রেন থেকে আসে মূলত সূর্যমুখী তেল। পাম অয়েল আসে প্রধানত ইন্দোনেশিয়া থেকে।

প্রতিমন্ত্রীর দেওয়া আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য হলো বাংলাদেশের মানুষ অন্য দেশের তুলনায় খুবই কম দামে খাবার খাচ্ছে।

লন্ডনে পেট্রলের দাম তিন গুণ বেড়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেছেন, ‘আজকে বাংলাদেশে পেট্রলের দাম হলো ৯০ টাকা। লন্ডনে গিয়ে দেখি, পেট্রলের দাম এক পাউন্ড ছিল। এক পাউন্ডের দাম হলো ১১০ টাকা। সেখানে এখন পেট্রলের দাম ৩ দশমিক ৫৩ পাউন্ড। এর মানে হচ্ছে লন্ডনে ৩৭০ থেকে ৩৮০ টাকা এক লিটার পেট্রলের দাম। আর আমাদের এখানে সরকার দিচ্ছে ৯০ টাকায়। অথচ মানুষ বুঝতে পারে না কিছু।’ (প্রতিমন্ত্রী এ কথা বললেও সত্য হচ্ছে লন্ডনে পেট্রল কখনোই ২ পাউন্ডের ওপরে যায়নি। এখন তা হচ্ছে ১.৮০ পাউন্ড লিটার।)

আলোচ্য অংশে লন্ডনে একজন মানুষের সর্বনিম্ন আয় কত আর বাংলাদেশের একজন মানুষের সর্বনিম্ন আয় কত তা বিবেচনায় না নিয়েই দুই দেশের তেলের মূল্যের একটি তুলনামূলক রেখাচিত্র তিনি যেভাবে তুলে ধরেছেন, তা আমাদের আমোদিত করেছে। তিনি বলেছেন, লন্ডনে যে তেলের দাম ৩৮০ টাকা, বাংলাদেশে তার দাম ৯০ টাকা। কিন্তু বাংলাদেশের একজন মানুষের আয় কত আর যুক্তরাজ্যের একজন মানুষের আয় কত, সেটি উল্লেখ না করার মধ্য দিয়ে আমরা একটি তুলনামূলক সামষ্টিক বাজার অর্থনীতির চিত্র পেয়েছি।

[ad_2]

Source link

Leave a Comment