কে খেলছে আগুন নিয়ে, চীন নাকি আমেরিকা

[ad_1]

চীন-আমেরিকার সম্পর্কের মিথস্ক্রিয়া আলোচনায় গ্রাহাম এলিসনের ‘ডেস্টিনড ফর ওয়ার: ক্যান আমেরিকা অ্যান্ড চায়না এসকেপ থুসিডাইডিস’স ট্র্যাপ’ বইটি সাম্প্রতিককালে খুবই আলোচিত। এ বইয়ে গ্রিক ইতিহাসবিদ থুসিডাইডিসের বয়ানে একটি প্রাচীন ঘটনা তুলে আনেন এলিসন। সম্পদে ও রাজনৈতিক শক্তিতে বেশি শক্তিশালী স্পার্টার সামনে যখন এথেন্স মাথা তুলে দাঁড়াচ্ছিল, তখন উভয়ের মধ্যে উত্তেজনা তৈরি হয়, শেষে এটি যুদ্ধ পর্যন্ত গড়ায়। প্রতিষ্ঠিত শক্তি আর উদীয়মান শক্তির মধ্যকার এ সংঘাতের ইতিহাস অতি প্রাচীন। লেখক উদাহরণ দিয়ে দেখান, প্রাচীনকাল থেকে এখন পর্যন্ত অন্তত ১৬টি এমন পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, যার মধ্যে ১২টি ক্ষেত্রেই যুদ্ধ হয়েছে। তিনি যৌক্তিকভাবে আমেরিকা ও চীনের মধ্যে একটি ‘থুসিডাইডিসের ফাঁদ’ দেখতে পেয়েছেন। বলা বাহুল্য, চীন-আমেরিকার মধ্যকার এ ফাঁদের প্রভাব ছড়িয়ে পড়ছে নানাদিকে, ভবিষ্যতে যা আরও বাড়বে।

আমরা পছন্দ করি বা না করি, বৃহৎ শক্তিগুলো আগুন নিয়ে খেলে, খেলতে পছন্দ করে কিংবা খেলতে বাধ্য হয়। বিশেষ করে কোনো দেশ যদি নিজের মতো করে বিশ্বব্যবস্থা গড়তে কিংবা টিকিয়ে রাখতে চায়, তাহলে তাদের আগুন নিয়ে খেলাটা অনিবার্য। এটা করা কতটা ভালো কিংবা কতটা খারাপ, সেটা ভিন্ন আলোচনা, তবে বর্তমান বিশ্বব্যবস্থায় এটাই ঘটেছে, ঘটবে ভবিষ্যতেও।

ডা. জাহেদ উর রহমান ইনডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের শিক্ষক

[ad_2]

Source link

Leave a Comment