এবার দুই কোরিয়ার মধ্যে উত্তেজনা

[ad_1]

গত মে মাসে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন ইউন। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্ক জোরদার করার ঘোষণা দিয়েছেন। এর মধ্যে দুই দেশের যৌথ সামরিক মহড়ার মতো বিষয়ও অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। উত্তর কোরিয়া এ যৌথ মহড়া নিয়ে ক্ষুব্ধ। একে আক্রমণের জন্য মহড়া হিসেবে বলে আসছে পিয়ংইয়ং।

নির্বাচনের আগে প্রচারের সময় ইউন চীনবিরোধী কড়া অবস্থান দেখিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, উত্তর কোরিয়াকে ঠেকাতে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্রব্যবস্থা কিনবেন। মার্কিন ক্ষেপণাস্ত্রব্যবস্থা কেনার কট্টর বিরোধিতা করে আসছে বেইজিং।

স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো ধারণা করছে, চীনকে শান্ত রাখতেই পেলোসির সঙ্গে সরাসরি সাক্ষাৎ এড়ালেন ইউন। সিউলে আসার পর এক সংক্ষিপ্ত প্রেস ব্রিফিং করেন পেলোসি। এ সময় সাংবাদিকদের কোনো প্রশ্নের উত্তর দেননি তিনি। গতকাল রাতেই তিনি জাপান সফরে যান। চীনের কড়া হুঁশিয়ারি উপেক্ষা করেও পেলোসি মঙ্গলবার তাইওয়ানে যান। এই সফরকে কেন্দ্র করে গতকাল চীন তাইওয়ান ঘিরে বিশাল সামরিক মহড়া করেছে।

[ad_2]

Source link

Leave a Comment