বন্ধ কক্ষে অচেতন মা-ছেলে হাসপাতাল থেকে বাসায়, এখনো আইসিইউতে মেয়ে

[ad_1]

জানা গেছে, ওই ভাড়া বাসায় তিনটি শোবার ঘর, একটি বসার ঘর এবং একটি খাবারঘর রয়েছে। জেনারেটরটি খাবারকক্ষের পাশেই ছিল।

হোসনে আরা বেগমের ভাই সেবুল মিয়া বলেন, বাড়িতে ফেরার পর তাঁর বোন কান্নাকাটি করছেন। ওই দিনের কথা তিনি স্মরণ করতে পারছেন না। বলেছেন, রাতে ঘুমাতে যাওয়ার পর অচেতন হয়ে গিয়েছিলেন। পরে জ্ঞান ফিরে তিনি নিজেকে হাসপাতালে দেখতে পান। এর বাইরে তিনি আর কিছু বলতে পারেননি।

সেবুল মিয়া আরও বলেন, ওই ভাড়া বাসায় এখনো আগের মতো সব মালামাল রয়েছে। সেগুলো বোনকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। ভাড়া বাসাটিতে বর্তমানে মা-বাবা এবং ছোট ভাই দেলোয়ার হোসেন এবং তাঁর স্ত্রী আছেন। তবে তিনি গ্রামের বাড়িতে থাকনে। বোন হাসপাতাল থেকে তাজপুরে আসবেন শুনে তিনি তাঁদের এগিয়ে নিয়ে এসেছেন।

[ad_2]

Source link

Leave a Comment