রাতের বাসটির চালক, সুপারভাইজার–হেলপার সম্পর্কে যা বললেন ঈগল পরিবহনের মালিক

[ad_1]

বাসটির এক যাত্রী প্রথম আলোকে এসব তথ্য জানিয়েছেন। বিপ্লব হোসেন (৪০) নামের ওই যাত্রী মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার কাজীপুর গ্রামের বাসিন্দা। তিনি ঈগল পরিবহনের ওই বাসটিতে দৌলতপুর উপজেলার ডাংমড়কা কাউন্টার থেকে উঠেছিলেন। তিনি বলেন, প্রাগপুর কাউন্টার থেকে ছেড়ে আসার পর ডাংমড়কা কাউন্টার থেকে তিনিসহ কয়েকজন যাত্রী ওঠেন। এরপর যথাক্রমে মথুরাপুর, হোসেনাবাদ, তারাগুনিয়া কাউন্টার থেকে যাত্রী তুলে ভেড়ামারা উপজেলায় প্রবেশ করে বাসটি। এরপর লালন শাহ সেতু পার হয়ে পাবনার ঈশ্বরদীতে ঢোকে। ঈশ্বরদী পর্যন্ত পরিবহনটির সবগুলো কাউন্টার মিলিয়ে ২৬ জন যাত্রী ওঠেন। এরপর যেসব যাত্রী ওঠেন, সবাইকে মধ্যরাস্তা থেকে তোলা হয়।

[ad_2]

Source link

Leave a Comment