সমালোচনার পর খেলাপি ঋণে কমল ছাড়

[ad_1]

প্রজ্ঞাপনে আরও বলা হয়েছে, ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের অনুমোদন ছাড়া মূলধনি যন্ত্রপাতি আমদানির ঋণপত্র খোলার পর সেই দায় ঋণে পরিণত হলে সেই ঋণ পুনঃ তফসিল করা যাবে না। ব্যাংকগুলো নিয়ম মেনে ঋণ পুনঃ তফসিল করছে কি না, তা পরিদর্শন করবে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। পরিদর্শনকালে কেন্দ্রীয় ব্যাংক ঋণ শ্রেণীকরণের যে মান নির্ধারণ করবে, সেই মানেই ঋণ শ্রেণীকরণ করতে হবে।

২০২০-২১ সালে করোনার কারণে ব্যবসায়িক ক্ষতির মুখে পড়া ব্যবসায়ীদের ঘুরে দাঁড়ানোর সুযোগ দিতে ঋণ পরিশোধে ছাড় দিয়েছিল বাংলাদেশ ব্যাংক। সেই ছাড় উঠে যাওয়ায় পর অনেকে খেলাপি হয়ে পড়ছেন। এ জন্য ব্যাংকের হাতে ঋণ পুনঃ তফসিলের পুরো ক্ষমতা ফিরিয়ে দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। পাশাপাশি দেওয়া হয়েছে বিভিন্ন ছাড়।

[ad_2]

Source link

Leave a Comment