হল বা মেসের শিক্ষার্থীদের সকালে খাওয়ার প্রতি অনীহা কেন

[ad_1]

হল কর্তৃপক্ষকে এ ব্যাপারে যথেষ্ট সচেতন থাকতে হবে। কারণ, শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখে হলে পর্যাপ্ত পুষ্টিসম্পন্ন খাবারের সরবরাহ বাড়াতে হবে। এতে করে শিক্ষার্থীরাও সকালের খাবারে আগ্রহ পাবে। বিশেষ করে হলগুলোতে রুটি, কলা, ডিম, দুধসহ নানা পুষ্টিকর খাবারের ব্যবস্থা থাকতে হবে। এতে করে খাওয়ার প্রতি শিক্ষার্থীদের আগ্রহ বেড়ে যাবে।

যাহোক, আমাদের দেশের বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোর এ বাস্তবতায় এত সহজে পরিবর্তন আসবে বলে মনে হয় না। তবে দ্রুত এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নিতে হবে সংশ্লিষ্ট সবাইকে। তারপরও হলের শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য রক্ষার দায়িত্ব নিতে হবে নিজেকে। বিশেষ করে সব শিক্ষার্থীর খাওয়ার প্রতি অনীহা না করে, বিশেষ করে সকালের খাবার নিয়মিত খেয়ে দিনটা শুরু করবে—এ প্রত্যাশাই থাকল।

আবু হাসনাত তুহিন
শিক্ষার্থী, আইন ও ভূমি প্রশাসন
পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

[ad_2]

Source link

Leave a Comment