ডিপফেইক কোম্পানির কাছে ‘মুখাবয়ব’ স্বত্ব বিক্রির খবর অস্বীকার ব্রুস উইলিসের

[ad_1]

ছবি: বিবিসি

টেকশহর কনটেন্ট কাউন্সিলর: হলিউডের দাপুটে অভিনেতা ব্রুস উইলিস তার মুখাবয়বের স্বত্ত¡ একটি রুশ ডিপফেইক কোম্পানির কাছে বিক্রি করে দিয়েছেন বলে সম্প্রতি বিভিন্ন গণমাধ্যমের খবরে চাউর হয়েছে। তবে এ ধরনের সংবাদ সত্যি নয় বলে জানিয়েছেন এই তারকার এজেন্ট। ডিপফেইক কোম্পানিটির পক্ষ থেকেও তা অস্বীকার করা হয়েছে।

ব্রুস উইলিসের মুখপাত্র বিবিসিকে জানিয়েছেন, কোম্পানিটির সঙ্গে তার কোন ধরনের ‘অংশীদারিত্ব অথবা চুক্তি নেই।’ অন্যদিকে ডিপফেইকের একজন প্রতিনিধি জানিয়েছেন নিজের মুখয়াববের ওপর শুধুমাত্র উইলিসের নিজের রাইটস রয়েছে।
কণ্ঠস্বর বিকৃত হয়ে যাওয়ার অসুখ অ্যাফাসিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার পর সম্প্রতি অভিনয় জীবন থেকে অবসরে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন উইলিস।

উল্লেখ্য, বাস্তবধর্মী ভিডিও তৈরি করতে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (এআই) এবং মেশিন লার্নিং প্রযুক্তি ব্যবহার করে ডিপফেইক। অনেক সময়ই তারকা অভিনয়শিল্পী অথবা রাজনীতিবিদদের মুখয়াবব এই ধরনের ডিপফেইক ভিডিও তৈরিতে ব্যবহৃত হয়।

Techshohor Youtube

উইলিস ডিপফেইক ভিডিও তৈরির জন্য তার মুখয়াববের রাইট বিক্রি করে দিয়েছেন বলে সম্প্রতি বেশ কয়েকটি প্রথমসারির গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়। এর মধ্যে গত ২৭ সেপ্টেম্বর ডেইলি মেইলের এক প্রতিবেদনে বলা হয় উইলিস এবং ডিপফেইকের মধ্যে একটি চুক্তি হয়েছে। প্রতিবেদনটিতে আরো বলা হয়, ‘দুই বার এমি পুরস্কার বিজয়ী ব্রæস উইলিসকে আবারো চলচ্চিত্রে দেখা যাবে। কারন তিনি নিজের ছবির রাইট ডিপফেইকের কাছে বিক্রি করে দিয়েছেন।’ পরবর্তীতে এই খবর টেলিগ্রাফসহ অন্যান্য মিডিয়াতেও প্রচারিত হয়।

টেলিগ্রাফের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘ ব্রুস উইলিস প্রথম হলিউড তারকা যিনি পর্দায় ব্যবহারের জন্য ‘ডিজিটাল টুইন’ তৈরির অনুমতি দিতে নিজের রাইটস বিক্রি করেছেন।’

অবশ্য গত বছর রুশ টেলিকম কোম্পানি মেগাফোনের জন্য একটি বিজ্ঞাপন তৈরিতে ব্রুস উইলিসের একটি ডিপফেইক ব্যবহার করা হয়েছিল। রুশ কোম্পানি ডিপফেইক অনুমতি সাপেক্ষে এটি তৈরি করেছিল।

রুশ ডিপফেইক কোম্পানি বিবিসিকে জানিয়েছে বিজ্ঞাপনটি নিয়ে উইলিসের টিমের সঙ্গে তারা ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করেছে। তারা বলেছে, ‘ডিজিটাল টুইন তৈরি করতে তিনি তার সম্মতি (এবং অনেক উপকরন) দিয়েছেন।’

বিবিসি/আরএপি



[ad_2]

Source link

Leave a Comment