ছোটবেলার স্বপ্ন পূরণ করতে বড়বেলায় শুরু করেন জাকিয়া’স ড্রিম

[ad_1]

টেকশহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : জাকিয়া’স ড্রিম-র স্বত্বাধিকারী জাকিয়া ফেরদৌস। ছোটবেলায় স্বপ্ন দেখতেন নিজের পরিচয় হবে, নিজের কিছু থাকবে , তিনি চাকরি করবেন কিন্তু বড় বেলায় এসে বিয়ের পর পারিবারিকভাবে চাকরি করার অনুমতি পাননি।কিন্তু ঘরে বসে কাজ করার জন্য শুরু করেন জাকিয়াস ড্রিম ।

জাকিয়াস ড্রিমে কি কি আছে ? শাড়ি, থ্রি পিস, কুর্তি , ওয়ান পিস , টু পিস সহ কাস্টমাইজ পণ্য আছে জাকিয়ার কাছে। ওমেন ক্লথ ই প্রধান আইটেম। ছেলেদের জন্য কেন নেই ? এমন প্রশ্নে জানালেন – চাহিদার সাথে সাথে নতুন আইটেম যুক্ত হয় , ধীরে ধীরে হবে । একসাথে অনেক পণ্য নিয়ে শুরু করা একটু টাফ । চাহিদার উপর ভিত্তি করে তিনি কাজ করে দেন । পারিবারিক পোশাক তৈরি করেন ক্রেতার অনুরোধে ।

কত টাকা দিয়ে শুরু করলেন ? পরিবার পরিজন নিয়ে চলতে চলতে সময় কাটত ফোনে লাইভ দেখে দেখে , প্রায় ১ লাখ টাকা নিয়ে শুরু করেন জাকিয়া , কেনেন বিদেশি পণ্য । এদিকে শুরু হয়ে গেল করোনা মহামারি । আক্রান্ত হলেন জাকিয়া । টানা ৩৫ দিন বন্দি ছিলেন তিনি । তখন সংগী ছিল মোবাইল , সন্তান সংসারকে নিরাপদ রাখতে আইসোলেশনে থাকা জরুরি ছিল ।

Techshohor Youtube

একবার মনে করছিলেন মারা যাব কি হবে আর এসব করে , তখন বিভিন্ন গ্রুপ , ফেইসবুক থেকে লিভ নিয়ে মানসিকভাবে আরও সংকুচিত করলেন । তারপর আবার মনকে শক্ত করে গ্রুপে জইন করলেন । সবাই দেশি কাপড় নিয়ে কাজ করছে , পোস্ট দিচ্ছে , রিভিউ দিচ্ছে । নিজের বিদেশি কাপড় নিয়ে কি করবেন ভাবতে লাগলেন । সবাই এত দ্রুত লিখছে , বিভিন্ন কনটেন্ট নিয়ে লিখছে আমি কেন পারব না – ভাবলেন জাকিয়া ।

উই গ্রুপে অনেকেই লিখলেন ডিজিটাল স্কিল গ্রুপ থেকে শেখার কথা , ডোমেইন , হোস্টিং , কনটেন্ট মার্কেটিং , ইত্যাদি শব্দের সাথে পরিচিত হলেন । গেলেন ডিজিটাল স্কিল গ্রুপে , পরিচিত হলেন রাজীব আহমেদের ১০ মিনিট রাইটিং এর সাথে। বাংলা টাইপ করতে জানতেন না জাকিয়া , দিনের পর দিন নিজেকে দক্ষ করতে লাগলেন , এরপর আরও সব ফর্মুলা ছিল যেগুলো নিয়ে কাজ করতে শুরু করলেন ।

ই কমার্স ইন্ডাস্ট্রি হল শিক্ষিত লোকের ইন্ডাস্ট্রি তাই এখানে পণ্য উপস্থাপন করার পদ্ধতি ভিন্ন , রাজীব আহমেদের পরামর্শ মেনে চলছেন জাকিয়া ফেরদৌস এবং গ্রুপের অন্যরা ।



[ad_2]

Source link

Leave a Comment