উদ্বোধন হল ৫ম বাংলাদেশ রোবট অলিম্পিয়াড ,কাল সমাপনী

[ad_1]

টেকশহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি)-তে মঙ্গলবার সকালে ৫ম বাংলাদেশ রোবট অলিম্পিয়াড এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে । উদ্বোধন করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক ।

জুনিয়র এবং চ্যালেঞ্জ দুইটি গ্রুপে এবছর মোট ৫টি ক্যাটাগরিতে জাতীয় পর্ব অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এগুলো হল- ফিজিক্যাল কম্পিউটিং, ক্রিয়েটিভ ক্যাটাগরি, রোবটিকস কুইজ, রোবট গ্যাদারিং এবং রোবট ইন মুভি।

জাতীয় পর্বে বিজয়ীদের মধ্য থেকে পরবর্তীতে হাতে-কলমে প্রশিক্ষণ এবং ওয়ার্কশপের মাধ্যমে নির্বাচিত শিক্ষার্থীরাই ২৪তম আন্তর্জাতিক রোবট অলিম্পিয়াডে থাইল্যান্ডের ফুকেট- এ বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করবে।

Techshohor Youtube

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক বলেন, জ্ঞানভিত্তিক ভবিষ্যতে রোবট মূল কেন্দ্র বিন্দুতে পরিণত হবে। ঝুঁকিপূর্ণ কাজের পাশাপাশি জ্ঞানভিত্তিক উদ্ভাবনী কাজের জন্য বাংলাদেশের শিশুরা রোবট তৈরি করবে। বিশ্বের উন্নত দেশের চেয়ে বাংলাদেশের শিশুরা মোটেই পিছিয়ে নেই। বাংলাদেশ যেন রোবট বানাতে এবং রপ্তানিতে বিশ্বে নেতৃত্ব দিতে পারে সে জন্য খুদে রোবটিয়ারদের প্রস্তুত হতে বলেন তিনি। একইসাথে বুয়েটের রোবটিকস ল্যাব যেনো তারা ব্যবহার করতে পারেন সে বিষয়েও উদ্যোগ নেয়া হবে বলে তিনি জানান।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, খেলায় অংশগ্রহণ করলেই জয় বা পরাজয় নির্ধারণ করা যায়। তিনি আরো বলেন, আমাদের দেশের তরুণরা ইউরোপের থেকে পিছিয়ে নেই এবং তারা মেধাবী। তাদের শুধু সুযোগ তৈরি করে দেওয়া দরকার। আর এই সুযোগ তৈরি করে দিয়েছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

পলক বলেন, ষষ্ঠ শ্রেণী থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত আইসিটি বিষয় যুক্ত করা হয়েছে। ছাত্র-ছাত্রীরা যাতে হাতে কলমে শিখতে পারে সেজন্য স্কুল-কলেজে ১৩ হাজার শেখ রাসেল ডিজিটাল কম্পিউটার ল্যাব স্থাপন করা হয়েছে। গত ১৮ অক্টোবর নতুন করে ৫ হাজার কম্পিউটার ল্যাব এর পাশাপাশি ৩০০ শেখ রাসেল স্কুল অফ ফিউচার উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এখন ক্লাস সিক্সের একটা ছেলে মেয়ে কম্পিউটার ল্যাবে যেতে পারছে, প্রোগ্রামিং, কোডিং শিখতে পারছে, কম্পিউটার বিজ্ঞান সম্পর্কে তারা হাতে-কলমে জ্ঞান অর্জন করতে পারছে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টেকনোলজি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. হাফিজ মুহম্মদ হাসান বাবু। সভাপতিত্ব করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোঃ মোস্তফা কামাল। এছাড়া, অনুষ্ঠানটিতে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোবটিক্স এন্ড মেকাট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারপার্সন ড. সেঁজুতি রহমান এবং বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্কের সাধারন সম্পাদক মুনির হাসান। বাংলাদেশ রোবট অলিম্পিয়াডের সভাপতি এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোবটিক্স এন্ড মেকাট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. লাফিফা জামাল অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান। তিনি বলেন, তথ্য প্রযুক্তি নির্ভর চতুর্থ শিল্প বিপ্লব এর সুবিধা সমূহ কাজে লাগানোর জন্য দক্ষ মানব শক্তি তৈরির একটি অসাধারণ প্রত্যয় এবং পরিকল্পনা বাংলাদেশ সরকারের আছে। সেটি বাস্তবায়নে সব সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আমাদের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের কাজের সাথে ঘনিষ্টভাবে সম্পৃক্ত থাকে।

২০১৮ সাল থেকে বাংলাদেশে রোবট অলিম্পিয়াড আয়োজিত হচ্ছে। এ বছর জাতীয় পর্বে সারাদেশের ৬৪ টি জেলা থেকে ১০২৪ জন প্রতিযোগী নিবন্ধন করেছে। এ অলিম্পিয়াড আয়োজনের অংশ হিসেবে এ বছর সারা দেশের ৩০০টি সংসদীয় আসনে অবস্থিত শেখ রাসেল স্কুল অফ ফিউচার এ অলিম্পিয়াডের অ্যাক্টিভেশন অনুষ্ঠান হয়েছে। ৮টি বিভাগীয় শহরের ১০টি শেখ রাসেল স্কুল অফ ফিউচার এ অনুষ্ঠিত হয়েছে দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালা।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোবটিক্স এন্ড মেকাট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ এবং বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্কের যৌথ আয়োজনে দুই দিনব্যাপী জাতীয় অলিম্পিয়াডের সমাপনী অনুষ্ঠান আগামী ২৬ অক্টোবর ২০২২ বুধবার ।



[ad_2]

Source link

Leave a Comment