নতুন ধারা গ্রহনে ব্যর্থতার কথা স্বীকার করলেন জাকারবার্গ

[ad_1]

মেটার প্রধান জাকারবার্গ। ছবি : ইন্টারনেট

টেকশহর কনটেন্ট কাউন্সিলর: সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং-এ নতুন একটি ধারা গ্রহন করতে ব্যর্থ হয়েছেন মেটার প্রধান নির্বাহি কর্মকর্তা মার্ক জাকারবার্গ। অথচ চলমান এই ধারার ওপর নির্ভর করেই প্রতিদ্বন্দ্বী টিকটক বিপুল সফলতা অর্জন করেছে। সম্প্রতি দেয়া এক সাক্ষাতকারে জাকারবার্গ নিজেও বিষয়টি স্বীকার করেছেন।

বিশ্লেষক বেন থম্পসনের স্টেটচেরি নিউজলেটারে প্রকাশিত এক সাক্ষাতকারে ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতা জাকারবার্গ বলেছেন, সামাজিক যোগাযোগ সেবার মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা ‘কনটেন্টগুলোর সাথে মিথস্ক্রিয়া’ এমন একটি নতুন পন্থার সুযোগ আমরা গ্রহন করতে পারি নি। আকর্ষণীয় বিষয়গুলো আবিস্কারের জন্য সাধারন মানুষ তাদের সামাজিক যোগাযোগের ‘ফিড’গুলো ব্যবহার করে। এগুলো আবার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করে ও প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করে।

তিনি আরো বলেন, ‘বর্তমান বিশ্বে কনটেন্ট কে তৈরি করেছে তা খুব একটা গুরুত্ব বহন করে না। আপনারা শুধুমাত্র সেরা কনটেন্ট চান।’

Techshohor Youtube

বিশ্লেষকরা মনে করেন, টিকটকের দ্রুত উত্থানের পেছনে অন্যতম ভূমিকা রেখেছে এর অলগারিদম। এই গাণিতিক হিসাবের মাধ্যমে ব্যবহারকারীদের পছন্দ ও হিস্টোরি দেখার উপর ভিত্তি করে শর্ট ভিডিওগুলো রিকমেন্ড করে থাকে। টিকটকের দ্রুত জনপ্রিয়তা ফেসবুককে চ্যালেঞ্জের মুখে ঠেলে দিয়েছে। এরই মধ্যে ব্যবহারকারীর হার কমতে শুরু করেছে ও চলতি বছর ফেসবুকের শেয়ারও কমেছে ৫৬ শতাংশের বেশি।

টিকটককে ‘খুবই কার্যকরী প্রতিদ্বন্দ্বী ’ হিসেবে উল্লেখ করে জাকারবার্গ বলেছেন, এ বিষয়ে আমি একটু ধীর ছিলাম কারণ একে বড়জোর আমার কাছে ইউটিউবের একটি সংস্করন মনে হয়েছে। তিনি আরো বলেছেন, শুধুমাত্র ছোট ভিডিও ছাড়াও ছবি ও টেক্সটসহ বিভিন্ন ধরনের কনটেন্ট সুপারিশ করবে এমন একটি কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা তৈরি করতে হবে ।

আরএপি



[ad_2]

Source link

Leave a Comment